রোজা কি? রোজার নিয়ত,সেহরি ও ইফতারের দোয়া

আসসালামু আলাইকুম। আবারও পবিত্র মাহে রমজান আমাদের মাঝে উপস্থিত হয়েছে৷ আমরা সবাই পবিত্রতার সাথে ইবাদত করে সিয়াম সাধনা করব।আজ থেকে ২২ এপ্রিল ২০২৩ পর্যন্ত এই পুরো এক মাস পালিত হবে রোজা। ইবাদতে মশগুল থাকবেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। । প্রতিটি সামর্থ্যবান নর-নারীর উপর রোজা ফরজ করা হয়েছে৷ রোজা রাখার জন্য নিয়ত করতে হয়৷ এ ছাড়া ইফতার ও সেহরিতেও কতিপয় দোয়া পড়তে হয়। আসুন জেনে নেই রোজা কি?  রোজার নিয়ত, ইফতার ও সেহরির দোয়াসমূহ 

রোজা কি? রোজার নিয়ত,সেহরি ও ইফতারের দোয়া
রোজা কি? রোজার নিয়ত,সেহরি ও ইফতারের দোয়া

রোজা কাকে বলে? রোজা কি?

'রোযা' শব্দটি ফার্সী। এর আরবী শব্দ হলো 'সাওম'। 'সাওম' শব্দের আভিধানিক অর্থ বিরত থাকা। শরীয়তের পরিভাষায় সুবহে সাদিক থেকে সূর্যান্ত পর্যন্ত নিয়ত সহকারে পানাহার এবং স্ত্রী সহবাস হতে বিরত থাকাকে 'সাওম' বা রোযা বলা হয়

রোজার নিয়ত

রোজা রাখার জন্য নিয়ত করতে হয়। “আমি আগামীকাল রোজা রাখব” এটা বললেই নিয়ত করা হয়ে যায়। কিংবা রোজা রাখার ইচ্ছাপোষণ করলেও নিয়ত করা হয়ে যাবে। তবে আমাদের মাঝে প্রচলিত যে দোয়া আছে সেটা অর্থসহ উল্লেখ করব৷ দেখুন তাহলে রোজার পরিপূর্ণ নিয়ত।


সেহরি খাওয়ার পর রোজা রাখার নিয়ত করতে হয়।

রোজা রাখার আরবি নিয়ত: نَوَيْتُ اَنْ اُصُوْمَ غَدًا مِّنْ شَهْرِ رَمْضَانَ الْمُبَارَكِ فَرْضَا لَكَ يَا اللهُ فَتَقَبَّل مِنِّى اِنَّكَ اَنْتَ السَّمِيْعُ الْعَلِيْم

বাংলা উচ্চারণ: নাওয়াইতু আন আছুমা গদাম মিং শাহরি রমাদ্বানাল মুবারকি ফারদ্বল্লাকা ইয়া আল্লাহু ফাতাক্বব্বাল মিন্নি ইন্নাকা আংতাস সামিউল আলিম।

বাংলায় অর্থ: হে আল্লাহ, আগামীকাল পবিত্র রমজান মাসে তোমার পক্ষ থেকে ফরজ করা রোজা রাখার নিয়ত করলাম, অতএব তুমি আমার পক্ষ থেকে কবুল কর, নিশ্চয়ই তুমি সর্বশ্রোতা ও সর্বজ্ঞানী।
বাংলায় নিয়ত: হে আল্লাহ! আপনার সন্তুষ্টির জন্য আমি আগামীকাল পবিত্র রমজানের ফরজ রোযা রাখার নিয়ত করছি। আমার পক্ষ থেকে আপনি তা কবুল করুন। নিশ্চয়ই আপনি সর্বশ্রোতা, সর্বজ্ঞাত।


সেহরির দোয়া

আমাদের রোজার সূচনা হয় সেহরি খাওয়ার মধ্য দিয়ে। পরদিন রোজা রাখার জন্য সুবহে সাদিকের পূর্বে ভোর রাতে সেহরি খাওয়া হয়। তবে সেহরি যে ভোর রাতেই খেতে হবে এমন কোন বাধ্যবাধকতা নেই। ইফতারের পর থেকে সুবহে সাদিক পর্যন্ত যে কোন সময়েই সেহরি খাওয়া যায়। সেহরিকে আরও বরকতময় করতে দোয়া পড়া হয়। আমরা এখন সেহরির সেই দোয়টিই উল্লেখ করব৷


সেহরির দোয়া আরবিতেঃ نَوَيْتُ اَنْ اُصُوْمَ غَدًا مِّنْ شَهْرِ رَمْضَانَ الْمُبَارَكِ فَرْضَا لَكَ يَا اللهُ فَتَقَبَّل مِنِّى اِنَّكَ اَنْتَ السَّمِيْعُ الْعَلِيْم


উচ্চারণঃ নাওয়াইতু আন আছুম্মা গাদাম মিন শাহরি রমাজানাল মুবারাকি ফারদাল্লাকা, ইয়া আল্লাহু ফাতাকাব্বাল মিন্নি ইন্নিকা আনতাস সামিউল আলিম।


অর্থঃ হে আল্লাহ! আমি আগামীকাল পবিত্র রমজানের তোমার পক্ষ থেকে নির্ধারিত ফরজ রোজা রাখার নিয়্যত করলাম। অতএব তুমি আমার পক্ষ থেকে আমার রোযা কবুল কর, নিশ্চয়ই তুমি সর্বশ্রোতা ও সর্বজ্ঞানী।

ইফতারের দোয়া

ইফতারের আগে ইফতার সামনে নিয়ে এই দোয়া পড়তে হয়: بسم الله اَللَّهُمَّ لَكَ صُمْتُ وَ عَلَى رِزْقِكَ اَفْطَرْتُ

বাংলা উচ্চারণ : আল্লাহুম্মা লাকা ছুমতু ওয়া আলা রিযক্বিকা ওয়া আফতারতু বিরাহমাতিকা ইয়া আরহামার রাহিমিন।

অর্থ: হে আল্লাহ, আমি তোমারই সন্তুষ্টির জন্য রোজা রেখেছি এবং তোমারই দেয়া রিজিজের মাধ্যমে ইফতার করছি।
ইফতারের বাংলা নিয়ত: হে আল্লাহ, আমি আপনার নির্দেশিত মাহে রমজানের ফরজ রোজা শেষে আপনারই নির্দেশিত আইন মেনে রোজার পরিসমাপ্তি করছি ও রহমতের আশা নিয়ে ইফতার শুরু করছি। তারপর ‘বিসমিল্লাহি ওয়াআলা বারাকাতিল্লাহ’ বলে ইফতার করা।


সবাই রমজানের পবিত্রতা রক্ষা করে ইবাদত করবেন।কোনো খারাপ বা অশ্লীল কাজ করবেন না। রমজানে স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে ৭০ গুণ বেশি সওয়াব পাওয়া যায়। তাই এ মাসে ৫ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করুন এবং বেশি বেশি কোরআন তেলওয়াত করুন জিকির করুন। সাথে রোজার নিয়ত, সেহরি ও ইফতারের দোয়া যথাসময়ে পড়ে নিন।


পোস্টে কোথাও ভুল ক্রুটি হলে ক্ষমা করবেন সকল প্রকার টিপস এবং ট্রিক পেতে আমাদের ওয়েবসাইট  ট্রিকবিডিফ্রি  Trickbdfree এর সাথেই থাকুন।

Next Post Previous Post
1 Comments
  • নামহীন
    নামহীন ২৫ মার্চ, ২০২৩ এ ৮:২৬ PM

    Thanks

Add Comment
comment url